সিইসির বক্তব্যে ষড়যন্ত্র দেখছে বিএনপি

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার তৃতীয় কোন শক্তির ষড়যন্ত্র বলে তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেছেন। হঠাৎ তাঁর এই বক্তব্য গভীর সন্দেহজনক ও ষড়যন্ত্রমূলক বলে প্রতীয়মান হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির আহমদ।

তিনি বলেন, সিইসি নিরপেক্ষ ও সহিংসতামূক্ত নির্বাচন চাইলে সেনাবাহিনীকে ম্যাজিষ্ট্রেসী ক্ষমতা দিয়ে মাঠে নামাতে পারতেন, কিন্তু নামান নি।

আজ শুক্রবার (১৪ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টায় নয়া পল্টনে বিএনপির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, সরকারের নির্দেশে সেনাবাহিনীকে দর্শক হিসেবে রাখারই চেষ্টা চালাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। পুলিশ ও প্রশাসন ইসির সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে। পুলিশ ভোটের মাঠে এখন আওয়ামী লীগের লেঠেল বাহিনীর রুদ্রমূর্তিতে অবতীর্ণ হয়েছে। তাহলে কেন এই অকল্পনীয় সহিংসতা ও পাইকারি গ্রেফতারের দায় সিইসি নিজে না নিয়ে এখন তৃতীয় শক্তির ষড়যন্ত্রের কথা বলছেন-তা রহস্যজনক দুরভিসন্ধি।

তিনি বলেন, মানুষকে ভুলিয়ে ভালিয়ে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখার ব্যর্থ পরিকল্পনায় তারা বেসামাল হয়ে পড়েছে। এমন কোন গভীর চক্রান্তে আওয়ামী সরকারই মেতে আছে, যা তারা নিজের মুখে না বলে সিইসি’র মুখ দিয়ে বলাচ্ছে। আওয়ামী অবৈধ সরকারের বশংবদ প্রধান নির্বাচন কমিশনার ৫ জানুয়ারীর চেতনাকে ধারণ করেই আসন্ন নির্বাচন নিয়ে নোংরা নীল নকশা করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

তিনি আরও বলেন, গণমানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ার একটি ষড়যন্ত্রমূলক নির্বাচনেরই তিনি আয়োজন করছেন। এজন্য হঠাৎ করে তিনি তৃতীয় শক্তির ষড়যন্ত্রের কথা বলছেন। তাঁর এই বক্তব্য অশুভ ইঙ্গিতবাহী। ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিং থেকে জনদৃষ্টিকে সরানোর জন্যই তাঁর এই বক্তব্যটি রহস্যঘেরা কুটিল চক্রান্তের আভাস মাত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*